আজ ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং

ডুলাহাজারায় বিচার দাবিতে চেয়ারম্যান বাড়িতে বিক্ষুব্ধ জনতা!

মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নে চুরির ঘটনায় বিচারের দাবীতে চেয়ারম্যান বাড়িতে তোলপাড় চালায় বিক্ষুব্ধ জনতা। সুষ্ট বিচার দাবিতে এসময় তিন শতাধিক স্থানীয় লোকজন অবস্থান করে।
বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সন্ধ্যার পর থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত একটি চুরির ঘটনার প্রতিবাদে এ অবস্থান কর্মসূচি নেয়া হয়। পরে ঘটনাস্থলে থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।
জানা গেছে, উপজেলার ডুলাহাজারা বালুচর এলাকায় চুরির ঘটনায় অতিষ্ঠ হয়ে পড়ছে লোকজন। সর্বশেষ ঘটনায় চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের বাড়িতে অবস্থান নেয় স্থানীয় জনতা। তবে ওসময় সালিশ বৈঠকের দিনক্ষণ ঠিক থাকলেও উপস্থিত হয়নি জড়িত পক্ষের লোকজন। এর আগে স্থানীয় ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার ফখরু উদ্দিনের নেতৃত্বে এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে দক্ষিণ বালুরচর বাসিন্দা কাদের হোসেনের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে চুরি হওয়া ৩০ টি লবণ মাঠের পলিথিন। এসময় বাড়ির গোয়াল ঘরের মাটি কুঁড়ে সকলের উপস্থিতিতে এসব চোরাই পণ্য উত্তোলন করে।
মেম্বার ফখরু উদ্দিন জানায়, দক্ষিন বালুচর এলাকার মৃত গিয়াস উদ্দিন পুতুর বাড়ির কবুতর ফার্ম থেকে কয়েকদিন আগে ১৫ জোড়া কবুতর ও ৩০ টি লবণ উত্তোলনের পলেথিন চুরি হয়ে যায়। বিষয়টি আমাকে অবগত করা হলে ঘটনায় জড়িতদের তথ্য বের করতে চেষ্টা করি। একপর্যায়ে এ ঘটনায় জড়িত এক জনের সন্ধান পাওয়া যায়। তার স্বীকারোক্তি মতে একই এলাকার কাদের হোসেনের বাড়ির গোয়াল ঘরের মাটি কুঁড়ে চুরাই পলেথিনগুলো জনসম্মুখে উদ্ধার করা হয়। এসময় ১৫ জোড়া কবুতর পাওয়া গেলে তা মালিককে প্রদান করা হয়েছে। চেয়ারম্যানের কাছে সোপর্দ করতে জড়িত ছেলেটিকে ও চোরাই পণ্য নিয়ে চেয়ারম্যান বাড়িতে উপস্থিত হয় ভুক্তভোগী মৃত গিয়াস উদ্দিন পুতুর ছেলে তৌহিদুল ইসলামসহ এলাকার লোকজন। এসময় চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের সামনে চুরির বিস্তারিত ঘটনা ও জড়িতদের পরিচয় খোলে বলে স্থানীয় কালু মাঝির ছেলে মোবারক হোসেন (২৩)। তার ভাষ্য মতে- কাদের হোসেনের ছেলে মোঃ মামুন (২১)এর নেতৃত্বে এ চুরির ঘটনাটি ঘটিয়েছে এবং জড়িত রয়েছে একই এলাকার বদি আলমের ছেলে আলি আহমদ (২৮) ও নুরুল আলমের ছেলে শহিদুল ইসলাম (২৪)।
এ ব্যাপারে কাদের হোসেন সাংবাদিক ও দুর্নীতির তথ্য প্রকাশকারী পরিচয়ে জানান, ঘটনাটি পরিকল্পিত ও সাজানো। পলেথিনগুলো তার ছেলে স্থানীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক মামুন চোরদের থেকে পলেথিনগুলো কিনে নিয়েছে। এসব পলেথিন গোয়ার ঘরের মাটিতে ফুঁতে রাখা হয়েছিল। স্থানীয় মেম্বার তার সাথে মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে শত্রুতার পাঁয়তারা করছে বলেও তিনি দাবি করেন।
ডুলাহাজারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন জানান, দক্ষিণ বালুর চর এলাকার একটি চুরির ঘটনা মিমাংসা করতে বৃহস্পতিবার রাতে আমার বাড়িতে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। এর আগে সালিসের বিষয়ে অবগত করেও উপস্থিত হননি জড়িত পক্ষের লোকজন। এসময় স্থানীয় প্রায় ৩ শতাধিক লোকজন ঘটনার বিচারের দাবীতে আমার বাড়িতে অবস্থান করে। এ খবর পেয়ে শেষমেশ ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। ঘটনার পরবর্তী ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Shares