কেউ অনেক টাকা কামাই করবে আবার কেউ কামাই করতে পারবেনা তা হতে দেয়া হবেনা-বাণিজ্য মন্ত্রী

বশির আল মামুন,চট্টগ্রাম ব্যুরো: বাণিজ্যে বসতি হল লক্ষি, আর সেই লক্ষি হল চট্টগ্রাম। তাই বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামের গুরুত্ব অপরিসীম। ব্যবসায়ীদের জন্য সেন্ট্রাল পয়েন্ট। চীনের রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু হল বেইজিং কিন্তু ব্যবসায়িক নগরী সাংহাই। তাই চট্টগ্রাম হল ব্যবসার কেন্দ্র বিন্দু। বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) নগরের পলোগ্রাউন্ড মাঠে চট্টগ্রাম চেম্বারের ২৮তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুন্সি এ কথা বলেন।
বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন ভারত সহ দক্ষিন এশিয়ার দেশ গুলো চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে চায়। এই জন্য চট্টগ্রামকে আধুনিক, সুন্দর ও উন্নতমানের করে গড়ে তুলতে হবে। সে লক্ষ্যে বর্তমানে টানেল নির্মান, বে-টার্মিনাল, মিরশরাই ইকুনোমিক জোন সহ বিভিন্ন বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে চট্টগ্রামে।
মন্ত্রী বলেন পাকিস্তান আমলে বাঙ্গালীরা ব্যবসার ধারে কাছে ছিলনা। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে বলে বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে আজকে ব্যবসা বাণিজ্যে করে সফল হচ্ছে। তিনি বলেন আগামী প্রজন্মকে যতার্থ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে পারলে আমরা বৈদেশিক অর্থ আনতে পারব। মন্ত্রী আরো বলেন কেহ অনেক টাকা কামাই করবে আবার কেউ কামাই করতে পারবেনা তা হতে দেয়া হবেনা। ব্যবসা বাণিজ্যে সকলের জন্য সমান অধিকার নিশ্চিৎ করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআই’র সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন অত্যাবশ্যকীয় ভোগ্যপণ্য আমদানি ও মজুদের বিষয়ে মন্ত্রণালয় নজর রাখছে । রমজান মাসে যাতে ভোগ্যপণ্য নিয়ে মানুষ ভোগান্তিতে না পড়েন। সেজন্য খাতুন গঞ্জের ব্যবসায়ীদেরকে সেদিকে বিশেষ নজর রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।
তিনি বলেন, ২০২০ সাল বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বছর। দেশে সব থেকে বেশি জিডিপি গ্রোথ ছিল ১৯৭৫ সালে। দেশের উদীয়মান অর্থনীতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে ২০৪১ সাল পর্যন্ত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে সরকার।
ফাহিম বলেন, করোনা ভাইরাস সাপ্লাই চেনে বিঘ্ন ঘটিয়েছে। আশাকরি বড় প্রভাব পড়বে না। সাময়িকভাবে ব্যবসায়ীর পেমেন্টে দেরি হলে যাতে অসুবিধা না হয় সে সিদ্ধান্ত হয়েছে। মানুষের মধ্যে যাতে এ ভাইরাস নিয়ে পেনিক সৃষ্টি না হয়।
চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মেলা কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ জামাল আহমেদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বন্দর-পতেঙ্গা আসনের সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান । অনুষ্টানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম চেম্বারের পরিচালক নুরুন নেওয়াজ সেলিম, বিজেএমইএর সহ-সভাপতি এম এম সালাম, চেম্বার পরিচালক আবু তৈয়ব ও চট্টগ্রাম উইম্যান্স চেম্বারের আবিদা আলী।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন নাসরিন ইসলাম। শুরুতে কোরআন তেলায়াতের পর পরিবেশন করা হয় জাতীয় সংগীত। এরপর চেম্বার সভাপতি অতিথিদের স্মারক উপহার দেন।
চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, এমএ আজিজের পাশে একটি কর্নারে ২০টি স্টল নিয়ে শুরু হয়েছিলো এ মেলা। এবার ২৮তম মেলা ৪ লাখ বর্গফুটজুড়ে হচ্ছে। গত ১০ বছর ধরে আমাদের পার্টনার কান্ট্রি থাইল্যান্ড। আমাদের লক্ষ্য এ জনপদে উৎপাদিত পণ্যের দেশ বিদেশে বাজার সৃষ্টি করা।
মন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, অর্থনীতির হৃদপিণ্ড চট্টগ্রাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহত্তর চট্টগ্রামে অনেক মেগা প্রকল্প দিয়েছেন। এগুলো অনটাইমে সম্পন্ন করতে হবে। বে টার্মিনালের কখন কী কাজ হবে তা নির্ধারণ করতে হবে। চট্টগ্রাম বন্দরে আরও ইক্যুইপমেন্ট দরকার। কর্ণফুলীতে ক্যাপিটাল ড্রেজিং দ্রুত শুরু ও শেষ করতে হবে। আপনি ব্যবসাবান্ধব মন্ত্রী, ব্যবসায়ীরা অর্থনীতির প্রাণশক্তি। আপনার সুনজর চাই আমরা।
৪ লাখ বর্গফুটজুড়ে এবারের মেলায় বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন, প্রোটন, প্রাণ, আরএফএল, মি. নুডলস, ইস্পাহানী, পেডরোলো, হাতিল, নাভানা, নাদিয়া, আখতার, নাদিয়া, নিউ এনটিক ফার্নিচার, ইজি বিল্ড, ফরেন প্যাভিলিয়ন, ফরেন জোন, থাই প্যাভিলিয়ন, পুনাক, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, প্যান্ডা আইসক্রিম, বেঙ্গল প্লাস্টিক, কিয়াম, বিআরবিসহ ৪৭০টি প্যাভিলিয়ন ও স্টলে ৪ শতাধিক প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।
মেলার প্রবেশ টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ টাকা। প্লে থেকে সপ্তম শ্রেণির ৫ লাখ শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে টিকিট দেওয়া হবে। সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» ডুলাহাজারায় ত্রাণের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ

» চকরিয়ায় বসতঘরে হামলা লুটপাট চালিয়ে অগ্নিসংযোগ: মহিলাসহ আহত- ৩

» লামা পৌরসভায় সরকারি খাদ্যশস্য পেল নিম্ন আয়ের মানুষ

» ঈদগাঁওতে মক্কা প্রবাসী ঐক্য কল্যাণ পরিষদের উদ্যোগে একশত পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

» সাবেক ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু আর নেই

» ঝিনাইদহের শৈলকুপায় উপজেলা ছাত্রদলের জীবাণুনাশক স্প্রে, মাস্ক ও সাবান বিতরণ

» তারেক রহমানের নির্দেশে ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের উদ্যোগে দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরন

» তারেক রহমানের নির্দেশে হরিনাকুন্ডুতে ছাত্রদলের জীবাণুনাশক স্প্রে : মসিউর রহমানের শুভেচ্ছা বার্তা

» সরকারের নির্দেশ মানছেনা চকরিয়া ও ফাইতংয়ের ৩৫ টি ইটভাটা: করোনা ঝুঁকিতে কাজ করছে ১০ হাজার শ্রমিক

» চকরিয়ায় করোনা সচেতনতায় মা স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ

উপদেষ্টা:নজরুল ইসলাম রানা
সম্পাদক : মোহাম্মাদ মোস্তফা কামাল
নির্বাহী সম্পাদক :মো:রফিক উদ্দিন লিটন
বার্তা সম্পাদক :নিজাম উদ্দিন

অফিস: ১৫০ নাহার ম্যানশন, ৬ষ্ঠ তলা,মতিঝিল বানিজ্যিক এলাকা,মতিঝিল ঢাকা।
মোবাইল :০১৫১৬১৭৭৩৮৫
কক্সবাজার অফিস :
সিফা ম্যানশন,বাস ষ্টেশন ঈদগাঁও, কক্সবাজার সদর।
মেইল:bddainik@gmail.com
মোবাইল :০১৮৫১২০০৭৯০/০১৬১০১১৭৯৭২

Desing & Developed BY ZihadIT.Com
,

কেউ অনেক টাকা কামাই করবে আবার কেউ কামাই করতে পারবেনা তা হতে দেয়া হবেনা-বাণিজ্য মন্ত্রী

বশির আল মামুন,চট্টগ্রাম ব্যুরো: বাণিজ্যে বসতি হল লক্ষি, আর সেই লক্ষি হল চট্টগ্রাম। তাই বাণিজ্যিক নগরী চট্টগ্রামের গুরুত্ব অপরিসীম। ব্যবসায়ীদের জন্য সেন্ট্রাল পয়েন্ট। চীনের রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দু হল বেইজিং কিন্তু ব্যবসায়িক নগরী সাংহাই। তাই চট্টগ্রাম হল ব্যবসার কেন্দ্র বিন্দু। বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) নগরের পলোগ্রাউন্ড মাঠে চট্টগ্রাম চেম্বারের ২৮তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুন্সি এ কথা বলেন।
বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন ভারত সহ দক্ষিন এশিয়ার দেশ গুলো চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে চায়। এই জন্য চট্টগ্রামকে আধুনিক, সুন্দর ও উন্নতমানের করে গড়ে তুলতে হবে। সে লক্ষ্যে বর্তমানে টানেল নির্মান, বে-টার্মিনাল, মিরশরাই ইকুনোমিক জোন সহ বিভিন্ন বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ চলছে চট্টগ্রামে।
মন্ত্রী বলেন পাকিস্তান আমলে বাঙ্গালীরা ব্যবসার ধারে কাছে ছিলনা। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে বলে বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে আজকে ব্যবসা বাণিজ্যে করে সফল হচ্ছে। তিনি বলেন আগামী প্রজন্মকে যতার্থ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে পারলে আমরা বৈদেশিক অর্থ আনতে পারব। মন্ত্রী আরো বলেন কেহ অনেক টাকা কামাই করবে আবার কেউ কামাই করতে পারবেনা তা হতে দেয়া হবেনা। ব্যবসা বাণিজ্যে সকলের জন্য সমান অধিকার নিশ্চিৎ করা হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এফবিসিসিআই’র সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন অত্যাবশ্যকীয় ভোগ্যপণ্য আমদানি ও মজুদের বিষয়ে মন্ত্রণালয় নজর রাখছে । রমজান মাসে যাতে ভোগ্যপণ্য নিয়ে মানুষ ভোগান্তিতে না পড়েন। সেজন্য খাতুন গঞ্জের ব্যবসায়ীদেরকে সেদিকে বিশেষ নজর রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।
তিনি বলেন, ২০২০ সাল বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বছর। দেশে সব থেকে বেশি জিডিপি গ্রোথ ছিল ১৯৭৫ সালে। দেশের উদীয়মান অর্থনীতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে ২০৪১ সাল পর্যন্ত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করছে সরকার।
ফাহিম বলেন, করোনা ভাইরাস সাপ্লাই চেনে বিঘ্ন ঘটিয়েছে। আশাকরি বড় প্রভাব পড়বে না। সাময়িকভাবে ব্যবসায়ীর পেমেন্টে দেরি হলে যাতে অসুবিধা না হয় সে সিদ্ধান্ত হয়েছে। মানুষের মধ্যে যাতে এ ভাইরাস নিয়ে পেনিক সৃষ্টি না হয়।
চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মেলা কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ জামাল আহমেদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বন্দর-পতেঙ্গা আসনের সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান । অনুষ্টানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম চেম্বারের পরিচালক নুরুন নেওয়াজ সেলিম, বিজেএমইএর সহ-সভাপতি এম এম সালাম, চেম্বার পরিচালক আবু তৈয়ব ও চট্টগ্রাম উইম্যান্স চেম্বারের আবিদা আলী।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন নাসরিন ইসলাম। শুরুতে কোরআন তেলায়াতের পর পরিবেশন করা হয় জাতীয় সংগীত। এরপর চেম্বার সভাপতি অতিথিদের স্মারক উপহার দেন।
চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, এমএ আজিজের পাশে একটি কর্নারে ২০টি স্টল নিয়ে শুরু হয়েছিলো এ মেলা। এবার ২৮তম মেলা ৪ লাখ বর্গফুটজুড়ে হচ্ছে। গত ১০ বছর ধরে আমাদের পার্টনার কান্ট্রি থাইল্যান্ড। আমাদের লক্ষ্য এ জনপদে উৎপাদিত পণ্যের দেশ বিদেশে বাজার সৃষ্টি করা।
মন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, অর্থনীতির হৃদপিণ্ড চট্টগ্রাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহত্তর চট্টগ্রামে অনেক মেগা প্রকল্প দিয়েছেন। এগুলো অনটাইমে সম্পন্ন করতে হবে। বে টার্মিনালের কখন কী কাজ হবে তা নির্ধারণ করতে হবে। চট্টগ্রাম বন্দরে আরও ইক্যুইপমেন্ট দরকার। কর্ণফুলীতে ক্যাপিটাল ড্রেজিং দ্রুত শুরু ও শেষ করতে হবে। আপনি ব্যবসাবান্ধব মন্ত্রী, ব্যবসায়ীরা অর্থনীতির প্রাণশক্তি। আপনার সুনজর চাই আমরা।
৪ লাখ বর্গফুটজুড়ে এবারের মেলায় বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন, প্রোটন, প্রাণ, আরএফএল, মি. নুডলস, ইস্পাহানী, পেডরোলো, হাতিল, নাভানা, নাদিয়া, আখতার, নাদিয়া, নিউ এনটিক ফার্নিচার, ইজি বিল্ড, ফরেন প্যাভিলিয়ন, ফরেন জোন, থাই প্যাভিলিয়ন, পুনাক, ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড, প্যান্ডা আইসক্রিম, বেঙ্গল প্লাস্টিক, কিয়াম, বিআরবিসহ ৪৭০টি প্যাভিলিয়ন ও স্টলে ৪ শতাধিক প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে।
মেলার প্রবেশ টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ টাকা। প্লে থেকে সপ্তম শ্রেণির ৫ লাখ শিক্ষার্থীকে বিনামূল্যে টিকিট দেওয়া হবে। সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



উপদেষ্টা:নজরুল ইসলাম রানা
সম্পাদক : মোহাম্মাদ মোস্তফা কামাল
নির্বাহী সম্পাদক :মো:রফিক উদ্দিন লিটন
বার্তা সম্পাদক :নিজাম উদ্দিন

অফিস: ১৫০ নাহার ম্যানশন, ৬ষ্ঠ তলা,মতিঝিল বানিজ্যিক এলাকা,মতিঝিল ঢাকা।
মোবাইল :০১৫১৬১৭৭৩৮৫
কক্সবাজার অফিস :
সিফা ম্যানশন,বাস ষ্টেশন ঈদগাঁও, কক্সবাজার সদর।
মেইল:bddainik@gmail.com
মোবাইল :০১৮৫১২০০৭৯০/০১৬১০১১৭৯৭২

Design & Developed BY ZahidITLimited