আজ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২০ ইং

গণপরিবহনে যৌন হয়রানি ঠেকাতে কঠোর হচ্ছে বিআরটিএ

স্টাফ রিপোর্টার::
প্রতিনিয়ত যৌন হয়রানির শিকার হতে হয় বলে গণপরিবহনে যাতায়াত করা নারীদের জন্য রীতিমতো আতঙ্কের বিষয়৷ চিমটি কাটা, গা ঘেঁষে দাঁড়ানো, চুল বা শরীরের কোনো অংশ স্পর্শ করা- গণপরিবহনে এসব যেন নিয়মিত ঘটনা৷
তবে যৌন হয়রানির এসব ঘটনার লাগাম টানতে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছে চট্টগ্রাম বিআরটিএ। গণপরিবহনে যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রমাণিত হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলছে সেবা সংস্থাটি।

বিআরটিএ সূত্র জানায়, গণপরিবহনে যৌন হয়রানি ঠেকাতে চট্টগ্রামের বিভিন্ন পরিবহন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছে বিআরটিএ। ওই বৈঠকে যৌন হয়রানির সঙ্গে কোনো চালক কিংবা হেল্পার জড়িত থাকলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

এছাড়াও চট্টগ্রামের সব বাস চালক ও হেল্পারদের তথ্য সংরক্ষণ, যৌন হয়রানির অভিযোগ জানতে ফেসবুক পেইজ ছাড়াও একটি আলাদা সেল গঠনের প্রক্রিয়াও শুরু করছে গণপরিবহনসহ সব ধরনের যানবাহন তদারকির দায়িত্বে থাকা সংস্থাটি।
বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক জানান, দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে গণপরিবহনে যৌন হয়রানির একাধিক অভিযোগ পেয়েছি। সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থাও নেওয়া হচ্ছে। তবে অনেক সময় যৌন হয়রানির ঘটনা ঘটলেও অভিযোগ করেন না ভুক্তভোগী।

তিনি বলেন, গণপরিবহনে যৌন হয়রানি ঠেকাতে সবচেয়ে বড় অস্ত্র প্রতিবাদ। কোনো নারীর সঙ্গে এ ধরনের ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে যদি তিনি আমাদের কাছে অভিযোগ করেন, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া সহজ হয়। অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা যায়।
বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের এ কর্মকর্তা জানান, যে কোনো মুল্যে নারীদের জন্য গণপরিবহন নিরাপদ করতে চাই আমরা। এ জন্য গণপরিবহনে যৌন হয়রানি ঠেকাতে বেশ কিছু উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। এসব উদ্যোগ বাস্তবায়িত হলে গণপরিবহনে যৌন হয়রানির ঘটনা কমে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Shares