আজ ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে মে, ২০২০ ইং

জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

অনলাইন নিউজ ডেস্ক:

ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৩৯ রানে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। বল হাতে সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট পেয়েছেন। বাংলাদেশের দেওয়া ১৭৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। সাকিবের করা প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে ব্রেন্ডন টেইলরকে শুন্য রানেই সাজঘরে ফেরান মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। দ্বিতীয় ওভারেই দ্বিতীয় উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। টেইলরের মত চাকাভাকেও শুন্য রানে আউট করেন সাকিব। দলীয় ৬ রান যোগ করতেই তৃতীয় উইকেট পড়ে জিম্বাবুয়ের। উইলিয়ামসকে সাজঘরে ফেরান শফিউল। চতুর্থ উইকেট জুটিতে হাল ধরার চেষ্টা করেন মুতুম্বোদজি ও হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। সে জুটি বেশি বড় করতে পারেননি তারা। দুজন মিলে তোলেন ২৭ রান। দলীয় ৩৫ রানে ব্যক্তিগত ১১ রানে মুতুম্বোজদিকে ফিরিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রথম উইকেট তুলে নেন আমিনুল ইসলাম। আগের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ফিফটি হাঁকানো বার্ল এ ম্যাচে বড় সংগ্রহ পাননি। মাত্র এক করেই শফিউলের বলে বোল্ড হন তিনি। আমিনুলের দ্বিতীয় শিকার হন মাসাকাদজা। ব্যক্তিগত ২৫ রান করে আমিনুলের বলে এল্বিডব্লিউর শিকার হন তিনি। তবে জিম্বাবুয়েকে একপাশ থেকে আগলে রাখেন মুতুম্বামি। দলীয় ৬৬ রানে মাদজিভাকে রান আউট করেন মুশফিক। ৬৬ রানে সাত উইকেট পড়লে ৮ম উইকেট জুটিতে জার্ভিসকে নিয়ে বড় স্কোর করার চেষ্টা চালিয়ে যান মুতুম্বামি। ফিফটির দেখা পান তিনি। তার ব্যাটে চড়ে সম্মানজনক স্কোর দাঁড় করায় জিম্বাবুয়ে। তার ইনিংস শেষ হয় ৫৪ রানে। তাকে আউট করেন শফিউল। ১৩৬ রানে শেষ হয় জিম্বাবুয়ের ইনিংস।এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দলকে দারুণ শুরু এনে দেন লিটন দাস। ভালো শুরু পেয়েও ফিফটি হাঁকাতে পারেননি লিটন। ব্যক্তিগত ৩৮ রানে বাজে শট খেলে আউট হন তিনি। বড় রান পাননি সাকিবও। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ। মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর ব্যাটিংয়ে বড় সংগ্রহের দিকে এগোতে থাকে বাংলাদেশ। মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ মিলে গড়েন ৭৮ রানের জুটি। ব্যক্তিগত ৩২ রান করে মুতুম্বোদাজির বলে আউট হন মুশফিক। তিনি ফিফটি না পেলেও ফিফটির দেখা পান মাহমুদউল্লাহ। তার ৬২ রানে ভর করে ১৭৫ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ বাংলাদেশ ১৭৫-৭ (ওভার ২০)

মাহমুদউল্লাহ ৬২, মুশফিক ৩২: জার্ভিস ৩-৩২

জিম্বাবুয়ে ১৩৬ (ওভার ২০)

মুতুম্বামি ৫৪, মাসাকাদজা ২৫: শফিউল ৩-৩৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Shares