পাবনার সাঁথিয়ায় ১০ বছরে ৬ হাজার ৭ শ’টি প্রকল্প সমাপ্ত


মোঃ রফিকুল ইসলাম(সান): পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় বিগত ১০ বছরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের আওতায় ৯ হাজার ৬শ’ ২৯ মেট্রিক টন কাবিখা ও টিআর এর অনুকুলে প্রায় ৬ হাজার ৪ শ’ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশল অফিসের (এলজিইডি) মাধ্যমে প্রায় ২ শ’ কোটি টাকার ২৪০টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়। এছাড়াও ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার কাশিনাথপুর ও কোনাবাড়িতে দুটি ফায়ার স্টেশন স্থাপন ও উপজেলা সদরে একটি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ নির্মিত হয়েছে।
উপজেলা এলজিইডি সূত্রে জানা যায়, বর্তমান সরকারের বিগত ১০ বছরে (২০০৯-২০১৮ পর্যন্ত) সাঁথিয়া উপজেলায় প্রায় ২ শ’ কোটি টাকার উন্নয়নমূলক কাজ শেষ হয়েছে। বিশাল অর্থের ২৪০টি প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করেছে উপজেলা প্রকৌশল অফিস। উন্নয়ন কাজের মধ্যে রয়েছে ১০০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১৪৫ কিলোমিটার পল্লী সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প। ৩০ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১১০ কিলোমিটার পল্লী সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ প্রকল্প। ৩ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ। ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯টি ব্রীজ নির্মাণ। ৩০ কোটি টাকার ৬৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভবন নির্মাণসহ হাটÑবাজার ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ী নির্মাণ প্রকল্প রয়েছে। বর্তমানে ২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উন্নয়ণকাজ চলমান রয়েছে। ৪টি ব্রীজ ইছামতি নদীর উপর নির্মাণ হওয়ায় উপজেলা সদরের সাথে প্রত্যন্ত অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর হয়েছে। গ্রামকেন্দ্রিক মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি। উপজেলা সদরের সাথে সহজ যোগাযোগের জন্য বিগত অর্থ বছরে উপজেলা সদর থেকে ডহরজানি পর্যন্ত ১১ কি:, আতাইকুলা থেকে ডেমরা পর্যন্ত ১৬ কিমিটার মিনি বিশ^রোড় করা হয়। যার প্রকল্প ব্যয় ছিল ২৭ কোটি টাকা।
বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের একই অর্থ বছরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের আওতায় ৬ হাজার ৪ শ’টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। এ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের জন্য সরকার বরাদ্দ প্রদান করেন কাবিখা ৫ হাজার ৪ শত মেট্রিক টন, প্রকল্প ৯৩৭টি, টিআর ৫হাজার ৬ শ’ মেট্রিক টন, প্রকল্প ৪ হাজার ২শ’ ৪৭টি। কাবিখা, টিআর ছাড়াও প্রকল্পগুলোর জন্য নগদ টাকা বরাদ্দ দেন ৭ কোটি ৭৫ লক্ষ ৯২ হাজার টাকা। প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে রাস্তা, বিভিন্ন প্রকার প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও প্রতিষ্ঠানে সোলার স্থাপন।


বিগত অর্থ বছরগুলোতে একইভাবে অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পে ১১ শ’ ৭০টি প্রকল্পের আওতায় ৩১ কোটি ৮৬ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। সেতু ও কালর্ভাট বাবদ উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয় ৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। এছাড়াও জমি আছে ঘর নেই, আশ্রয়ন কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প ও এইচবিবিকরণ প্রকল্পের আওতায় আরও ২ কোটি ২৫ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা বরাদ্দ প্রদান করে সরকার।
এছাড়াও বর্তমান সরকারের উন্নয়নে সাঁথিয়া উপজেলায় শিক্ষা প্রকৌশলীর আওতায় ১৫ কোটি ৪৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৫ তলা বিশিষ্ট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের কাজ এগিয়ে চলছে। সরকারের উন্নয়নের তালিকায় যোগ হয়েছে উপজেলায় ২টি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। যার একটি ইতোমধ্যে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। অন্যটির কাজ চলমান রয়েছে।
ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুনসুর আলম পিনচু বলেন, বিগত সময়ে আমার ইউনিয়নে পাকা রাস্তা ছিল না বললেই চলে। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একের পর এক পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। কোন কোন গ্রাম পাকা রাস্তার কারণে পৌরসভার মতো অনেকেই ভাবেন।

উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল্লাহ জানান, সাঁথিয়ায় বর্তমানে যে উন্নয়ন হয়েছে, তা অতীতে কখনও হয়নি। আর এ সবই সম্ভব হয়েছে পাবনা-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব শামসুল হক টুকু’র একান্ত প্রচেষ্টায়। তিনি সকল উন্নয়ন কাজের খোঁজখবর রাখেন। আমরা কাজ করতে গিয়ে কোথাও কোন সমস্যার সম্মুখিন হলে তিনি সঙ্গে সঙ্গে সহায়তা করেন।
পাবনা-১ আসনের এমপি ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশকে উন্নয়নমুখি করে গড়ে তুলতে পরিকল্পনা করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে নিতে যাত্রা শুরু করেন। তার নেতৃত্বে সারাদেশে উন্নয়ন চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সাঁথিয়া-বেড়া আমার নির্বাচনী এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। আগের জড়া ছিন্ন সাঁথিয়া-বেড়া এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। আমাকে ভোট দিয়ে বার বার যারা নির্বাচিত করেছে তাদের সুবিধার্থে আগামী পাঁচ বছরে আরও বড় ধরনের দৃশ্যমান উন্নয়ন হবে বলে আমি আশা করি। এই জন্য তিনি তার নির্বাচনী এলাকার মানুষের সহায়তা চান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জাহানারা মাহবুব এর কবিতা

» নবাগত অফিসার ইনচার্জের সাথে বাংলাদেশ অটো বাইক শ্রমিক কল্যাণ সোসাইটি জেলা নেতৃবৃন্দের শুভেচ্ছা বিনিময়

» রংপুরে পুলিশ-গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায়, ৫ পুলিশ সদস্য ক্লোজড

» ভারতীয় কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বাংলাদেশের বিজিবির হাতে আটক

» বার্সায় মেসির ১৫ বছর

» বিএনপি সরকারের রেল বন্ধের সিদ্ধান্ত ছিল দেশের জন্য আত্মঘাতী : প্রধানমন্ত্রী

» রাউজান উত্তর গুজরা জাগৃতি সংঘের বিজয়া সম্মেলন ও সঙ্গীতাঞ্জলি সম্পন্ন

» অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধিতে বিচার বিভাগের দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি অপরিহার্য

» কক্সবাজার জেলা শ্রমিক লীগের বর্ধিত জরুরী সভা আহ্বান

» কক্সবাজার এলও শাখায় ৫ দালাল আটক!

সম্পাদক: অমিত চৌধুরী
নির্বাহী সম্পাদক: সেলিম হোসেন
বার্তা সম্পাদক: মোঃ শিলু পারভেজ
আন্তর্জাতিক সম্পাদক: এস এম মেহেদী

প্রধান কার্যালয়ঃ কালিয়াকৈর, গাজীপুর, বাংলাদেশ।

শাখা অফিসঃ  গোড়াই , মির্জাপুর , টাংগাইল, বাংলাদেশ ।

Mob: 01711113657,01611117887 bangladeshdainik@gmail.com

www.bangladeshdainik.com

Desing & Developed BY ZihadIT.Com
,

পাবনার সাঁথিয়ায় ১০ বছরে ৬ হাজার ৭ শ’টি প্রকল্প সমাপ্ত


মোঃ রফিকুল ইসলাম(সান): পাবনার সাঁথিয়া উপজেলায় বিগত ১০ বছরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের আওতায় ৯ হাজার ৬শ’ ২৯ মেট্রিক টন কাবিখা ও টিআর এর অনুকুলে প্রায় ৬ হাজার ৪ শ’ টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশল অফিসের (এলজিইডি) মাধ্যমে প্রায় ২ শ’ কোটি টাকার ২৪০টি প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়। এছাড়াও ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার কাশিনাথপুর ও কোনাবাড়িতে দুটি ফায়ার স্টেশন স্থাপন ও উপজেলা সদরে একটি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ নির্মিত হয়েছে।
উপজেলা এলজিইডি সূত্রে জানা যায়, বর্তমান সরকারের বিগত ১০ বছরে (২০০৯-২০১৮ পর্যন্ত) সাঁথিয়া উপজেলায় প্রায় ২ শ’ কোটি টাকার উন্নয়নমূলক কাজ শেষ হয়েছে। বিশাল অর্থের ২৪০টি প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়ন করেছে উপজেলা প্রকৌশল অফিস। উন্নয়ন কাজের মধ্যে রয়েছে ১০০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১৪৫ কিলোমিটার পল্লী সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প। ৩০ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১১০ কিলোমিটার পল্লী সড়ক রক্ষণাবেক্ষণ প্রকল্প। ৩ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ। ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৯টি ব্রীজ নির্মাণ। ৩০ কোটি টাকার ৬৫টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভবন নির্মাণসহ হাটÑবাজার ও অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ী নির্মাণ প্রকল্প রয়েছে। বর্তমানে ২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ৪২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উন্নয়ণকাজ চলমান রয়েছে। ৪টি ব্রীজ ইছামতি নদীর উপর নির্মাণ হওয়ায় উপজেলা সদরের সাথে প্রত্যন্ত অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর হয়েছে। গ্রামকেন্দ্রিক মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নত হয়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি। উপজেলা সদরের সাথে সহজ যোগাযোগের জন্য বিগত অর্থ বছরে উপজেলা সদর থেকে ডহরজানি পর্যন্ত ১১ কি:, আতাইকুলা থেকে ডেমরা পর্যন্ত ১৬ কিমিটার মিনি বিশ^রোড় করা হয়। যার প্রকল্প ব্যয় ছিল ২৭ কোটি টাকা।
বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের একই অর্থ বছরে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের আওতায় ৬ হাজার ৪ শ’টি প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। এ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নের জন্য সরকার বরাদ্দ প্রদান করেন কাবিখা ৫ হাজার ৪ শত মেট্রিক টন, প্রকল্প ৯৩৭টি, টিআর ৫হাজার ৬ শ’ মেট্রিক টন, প্রকল্প ৪ হাজার ২শ’ ৪৭টি। কাবিখা, টিআর ছাড়াও প্রকল্পগুলোর জন্য নগদ টাকা বরাদ্দ দেন ৭ কোটি ৭৫ লক্ষ ৯২ হাজার টাকা। প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে রাস্তা, বিভিন্ন প্রকার প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও প্রতিষ্ঠানে সোলার স্থাপন।


বিগত অর্থ বছরগুলোতে একইভাবে অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পে ১১ শ’ ৭০টি প্রকল্পের আওতায় ৩১ কোটি ৮৬ লক্ষ ৯৮ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। সেতু ও কালর্ভাট বাবদ উন্নয়ন বরাদ্দ দেওয়া হয় ৬ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। এছাড়াও জমি আছে ঘর নেই, আশ্রয়ন কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প ও এইচবিবিকরণ প্রকল্পের আওতায় আরও ২ কোটি ২৫ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা বরাদ্দ প্রদান করে সরকার।
এছাড়াও বর্তমান সরকারের উন্নয়নে সাঁথিয়া উপজেলায় শিক্ষা প্রকৌশলীর আওতায় ১৫ কোটি ৪৭ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৫ তলা বিশিষ্ট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের কাজ এগিয়ে চলছে। সরকারের উন্নয়নের তালিকায় যোগ হয়েছে উপজেলায় ২টি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। যার একটি ইতোমধ্যে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। অন্যটির কাজ চলমান রয়েছে।
ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুনসুর আলম পিনচু বলেন, বিগত সময়ে আমার ইউনিয়নে পাকা রাস্তা ছিল না বললেই চলে। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একের পর এক পাকা রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। কোন কোন গ্রাম পাকা রাস্তার কারণে পৌরসভার মতো অনেকেই ভাবেন।

উপজেলা প্রকৌশলী শহিদুল্লাহ জানান, সাঁথিয়ায় বর্তমানে যে উন্নয়ন হয়েছে, তা অতীতে কখনও হয়নি। আর এ সবই সম্ভব হয়েছে পাবনা-১ আসনের এমপি আলহাজ্ব শামসুল হক টুকু’র একান্ত প্রচেষ্টায়। তিনি সকল উন্নয়ন কাজের খোঁজখবর রাখেন। আমরা কাজ করতে গিয়ে কোথাও কোন সমস্যার সম্মুখিন হলে তিনি সঙ্গে সঙ্গে সহায়তা করেন।
পাবনা-১ আসনের এমপি ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীন বাংলাদেশকে উন্নয়নমুখি করে গড়ে তুলতে পরিকল্পনা করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৯ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে নিতে যাত্রা শুরু করেন। তার নেতৃত্বে সারাদেশে উন্নয়ন চলমান রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সাঁথিয়া-বেড়া আমার নির্বাচনী এলাকায় উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। আগের জড়া ছিন্ন সাঁথিয়া-বেড়া এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। আমাকে ভোট দিয়ে বার বার যারা নির্বাচিত করেছে তাদের সুবিধার্থে আগামী পাঁচ বছরে আরও বড় ধরনের দৃশ্যমান উন্নয়ন হবে বলে আমি আশা করি। এই জন্য তিনি তার নির্বাচনী এলাকার মানুষের সহায়তা চান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

মাদক বিরোধী ও সমাজকল্যান মূলক সংগঠন ড্রীমক্লাবের সাথে যুক্ত হন

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক: অমিত চৌধুরী
নির্বাহী সম্পাদক: সেলিম হোসেন
বার্তা সম্পাদক: মোঃ শিলু পারভেজ
আন্তর্জাতিক সম্পাদক: এস এম মেহেদী

প্রধান কার্যালয়ঃ কালিয়াকৈর, গাজীপুর, বাংলাদেশ।

শাখা অফিসঃ  গোড়াই , মির্জাপুর , টাংগাইল, বাংলাদেশ ।

Mob: 01711113657,01611117887 bangladeshdainik@gmail.com

www.bangladeshdainik.com

Design & Developed BY ZahidITLimited