আজ ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে মে, ২০২০ ইং

টেকনাফে সাংবাদিকদের নিয়ে মানব পাচার বিষয়ক প্রতিরোধে কর্মশালা সম্পন্ন

মোহাম্মদ আমিন, টেকনাফঃ

এনজিও সংস্থা ইপসার উদ্যোগে টেকনাফ উপজেলা কৃষি অফিস হল রুমে ২৬ নভেম্বর সোমবার সকাল ১০ ঘটিকায় মানব পাচার সংক্রান্ত প্রতিরোধে ও আইন বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালা সম্পন্ন হয়েছে।এনজিও সংস্থা ইপসার প্রোগ্রাম অর্ডিনেটর জিসু বড়ুয়ার সভাপতিত্বে আউট রীচ কো-অর্ডিনেটর মোঃ ওমর সাদেকের পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের এ,পি,পি,নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের এডভোকেট সাকী এ কাউছার।এসময় উপস্থিত ছিলেন, এডভোকেট আতিকুল ইসলাম, এনজিও প্রতিনিধি সেলিম বাহাদুর,বিলকিছ জাহান।প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশ নেন টেকনাফ পৌর প্রেস ক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিটির সকল নেতৃবৃন্দরা।টেকনাফ সাংবাদিক ইউনিটির প্রধান উপদেষ্ঠা হাফেজ মোঃ কাশেম,উপদেষ্ঠা মমতাজুল ইসলাম মনু, গিয়াস উদ্দীন,জেড করিম জিয়া, টেকনাফ পৌর প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি নুরুল হক, সাধারন সম্পাদক আব্দুস সালাম,সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রহমান,অর্থ সম্পাদক ফরহাদ আমিন, সাংবাদিক ইউনিটির সাধারন সম্পাদক নুরুল হোসাইন,সাংগঠনিক সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, সাংবাদিক আবুল আলী, মোঃ শাহীন, নুর হাকিম আনোয়ার,জসিম মাহমুদ,হেলাল উদ্দিন, মোঃ আমিন, মোঃ সেলিম,জাহাঙ্গীর আলম, সাইফুদ্দিন মোঃ মামুন, মোঃ রশিদ, মিজবাউল হক বাবলা,ছৈয়দুল আমিন চৌধুরী, এন আমান উল্লাহ আমান, নুরুল আলম,সহ প্রমুখ।

 

বর্তমানে বাংলাদেশ প্রযুক্তি উন্নয়নের ফলে অনেক পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। সেই সাথে অপরাধ প্রবণতাও বৃদ্ধি পেয়েছে ক্রমানুপাতিক হারে। তার মধ্যে অন্যতম মানবপাচার। প্রশিক্ষণ কর্মশালায় মানব পাচার ও সম্পর্কিত আইন, নিরাপদ প্রক্রিয়াসমূহ, মানব পাচার প্রতিরোধে করণীয় প্রভৃতি বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।মানব পাচার সংক্রান্ত চিহ্নিত সমস্যাবলী অশিক্ষিত জনগোষ্টি ও স্কুল থেকে ঝরে পড়ামৌলিক অধিকার ও মানবাধিকার সম্পর্কে জ্ঞাত না থাকা জনপ্রতিনিধিদের রহস্যজনক ভুমিকা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সরাসরি জড়িত থাকাপ্রতিরোধকারীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন সহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা প্রকৃত পাচারকারীরা আইনের আসলেও দ্রুত জামিন পাওয়া বিভিন্ন লোভনীয় বিজ্ঞাপন বাল্য বিবাহ ও বহু বিবাহ রোহিঙ্গা সমস্যা প্রেষণামূলক স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা গুলোকে কাজে সম্পৃক্ত না করা।করণীয় বিষয় সমূহ :মানব পাচার রোধে আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত করা দারিদ্রতা ও বেকারত্ব ঘুচাতে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে উদ্যোক্তা সৃষ্টি করা শিক্ষিত বেকারদের পর্যাপ্ত কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা।মানব পাচারে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করা।দ্রুত তথ্য সেবা নিশ্চিত করতে কল সেন্টার চালু করা।প্রতিরোধ কমিটিকে দেশ ও জনস্বার্থে আইনী সহায়তা নিশ্চিত করা।গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি, পুলিশী এবং কোষ্ট গার্ড টহল জোরদার করা পাচারকারীদের খুঁজে বের করা এবং শাস্তি নিশ্চিত করা।পাচারের অর্থ লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক, বিকাশ, মোবাইল ব্যাংকিং তদারকের আওতায় আনা।হঠাৎ করে ধনী হওয়া ব্যক্তিদের ব্যাংক হিসাব তল্লাশী ও তদারকি পর্যাযক্রমে জব্দ করাপাচারের শিকার হওয়া লোকজনদের সহায়তা প্রদান করা।অনলাইন মিডিয়ার মাধ্যমে জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা বৃদ্ধি করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     More News Of This Category
Shares