কক্সবাজার উপকূলে ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে বালি উত্তোলন ইন্ট্রোঃনদী গর্ভে বিলিন হতে যাচ্ছে প্যারাবন ও চর

মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল,কক্সবাজার  প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের দীপ অঞ্চল মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুরস্থ জেএমঘাট এলাকায় নদীতে  ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে চায়না কোম্পানীর কাছে বালি বিক্রি করার হিড়িক পড়েছে। এতে ঐ এলাকার প্যারাবন নদী গর্ভে বিলিন হওয়ার পাশাপাশি শংঙ্কা প্রকাশ করছেন জনসাধারণ।শুধু তায় নয় বিলিত হয়ে যাচ্ছে এ এলাকার ভরাট চর। এমতাবস্থায়  বালি উত্তোলন বন্ধের দাবী জানিয়েছে এলাকার সচেতন জনসমাজ। ইতিপূর্বে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ঐ কয়েক দফায় অভিযান চালালেও উক্ত ড্রেজিং মেশিন জব্ধ করতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

মহেশখালী, কক্সবাজার সদর উপজেলা ও চকরিয়া উপজেলার কুল ঘেষে উত্তর দক্ষিণে বয়ে গেছে মহেশখালী নদী। এ নদীর পশ্চিমে মহেশখালী সীমান্তে গড়ে তোলা হয়েছে উপকূলীয় প্যারাবন। এছাড়া গড়ে উঠেছে ছোট বড় বালির চর। এতে উপকূলীয় এলাকা অনেকটা ভাঙ্গন হ্রাস পায়। কিন্তু চলতি বছরের শুরুতে জেএম ঘাট এলাকায় চায়না কোম্পানী জেটি নির্মাণ করার পর এ স্থানে ৫ একর জুড়ে একটি জায়গা টার্মিনালের জন্য নির্ধারণ করেন। নির্ধারণ করার পর ঐ জায়গা ভরাট করার জন্য কালামারছড়া ইউনিয়নের চাইল্লাতলী এলাকার আবদুল হাকিমের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট জেএম ঘাট এলাকায় ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে নদী থেকে বালি তোলে  ঐ স্থানটি ভরাট করে নিচ্ছে। এছাড়া কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ উপকূলীয় এলাকার বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছে। এতে ঐ এলাকার বিশাল প্যারাবন নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাচ্ছে। পাশা-পাশি ভরাট চর ও বিলিন হয়ে যাচ্ছে। উক্ত ড্রেজিং মেশিন জব্ধ করার জন্য এলাকার সুশীল সমাজরা সংশ্লিষ্ট কৃর্তপক্ষকে বার বার আবেদ-নিবেদন করার পর সম্প্রতি কয়েক দফায় নামে মাত্র অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু রহস্যজনক কারণে কর্তৃপক্ষ তা জব্ধ কিংবা ড্রেজিংমেশিনের সংশ্লিষ্ট মালিককে আটক করতে ব্যর্থ হন। ফলে উক্ত স্থান থেকে প্রতিনিয়ত বালি উত্তোলন করতে উক্ত সিন্ডিকেট কোন ধরনের তোয়াক্কা করছে না। এদিকে মহেশখালী এসিল্যান্ড (ভূমি) হাসান মারুফ থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উক্ত স্থান থেকে বালি তোলার সংবাদ পেয়েছি।  কিন্ত সেখানে যাওয়ার পূর্বে ড্রেজিং মেশিন সরিয়ে নেয়ার কারণে তা জব্ধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» জাহানারা মাহবুব এর কবিতা

» নবাগত অফিসার ইনচার্জের সাথে বাংলাদেশ অটো বাইক শ্রমিক কল্যাণ সোসাইটি জেলা নেতৃবৃন্দের শুভেচ্ছা বিনিময়

» রংপুরে পুলিশ-গ্রামবাসীর সংঘর্ষের ঘটনায়, ৫ পুলিশ সদস্য ক্লোজড

» ভারতীয় কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী বাংলাদেশের বিজিবির হাতে আটক

» বার্সায় মেসির ১৫ বছর

» বিএনপি সরকারের রেল বন্ধের সিদ্ধান্ত ছিল দেশের জন্য আত্মঘাতী : প্রধানমন্ত্রী

» রাউজান উত্তর গুজরা জাগৃতি সংঘের বিজয়া সম্মেলন ও সঙ্গীতাঞ্জলি সম্পন্ন

» অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধিতে বিচার বিভাগের দ্রুত মামলা নিষ্পত্তি অপরিহার্য

» কক্সবাজার জেলা শ্রমিক লীগের বর্ধিত জরুরী সভা আহ্বান

» কক্সবাজার এলও শাখায় ৫ দালাল আটক!

সম্পাদক: অমিত চৌধুরী
নির্বাহী সম্পাদক: সেলিম হোসেন
বার্তা সম্পাদক: মোঃ শিলু পারভেজ
আন্তর্জাতিক সম্পাদক: এস এম মেহেদী

প্রধান কার্যালয়ঃ কালিয়াকৈর, গাজীপুর, বাংলাদেশ।

শাখা অফিসঃ  গোড়াই , মির্জাপুর , টাংগাইল, বাংলাদেশ ।

Mob: 01711113657,01611117887 bangladeshdainik@gmail.com

www.bangladeshdainik.com

Desing & Developed BY ZihadIT.Com
,

কক্সবাজার উপকূলে ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে বালি উত্তোলন ইন্ট্রোঃনদী গর্ভে বিলিন হতে যাচ্ছে প্যারাবন ও চর

মোঃ নাজমুল সাঈদ সোহেল,কক্সবাজার  প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের দীপ অঞ্চল মহেশখালী উপজেলার শাপলাপুরস্থ জেএমঘাট এলাকায় নদীতে  ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে চায়না কোম্পানীর কাছে বালি বিক্রি করার হিড়িক পড়েছে। এতে ঐ এলাকার প্যারাবন নদী গর্ভে বিলিন হওয়ার পাশাপাশি শংঙ্কা প্রকাশ করছেন জনসাধারণ।শুধু তায় নয় বিলিত হয়ে যাচ্ছে এ এলাকার ভরাট চর। এমতাবস্থায়  বালি উত্তোলন বন্ধের দাবী জানিয়েছে এলাকার সচেতন জনসমাজ। ইতিপূর্বে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ঐ কয়েক দফায় অভিযান চালালেও উক্ত ড্রেজিং মেশিন জব্ধ করতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

মহেশখালী, কক্সবাজার সদর উপজেলা ও চকরিয়া উপজেলার কুল ঘেষে উত্তর দক্ষিণে বয়ে গেছে মহেশখালী নদী। এ নদীর পশ্চিমে মহেশখালী সীমান্তে গড়ে তোলা হয়েছে উপকূলীয় প্যারাবন। এছাড়া গড়ে উঠেছে ছোট বড় বালির চর। এতে উপকূলীয় এলাকা অনেকটা ভাঙ্গন হ্রাস পায়। কিন্তু চলতি বছরের শুরুতে জেএম ঘাট এলাকায় চায়না কোম্পানী জেটি নির্মাণ করার পর এ স্থানে ৫ একর জুড়ে একটি জায়গা টার্মিনালের জন্য নির্ধারণ করেন। নির্ধারণ করার পর ঐ জায়গা ভরাট করার জন্য কালামারছড়া ইউনিয়নের চাইল্লাতলী এলাকার আবদুল হাকিমের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট জেএম ঘাট এলাকায় ড্রেজিং মেশিন বসিয়ে নদী থেকে বালি তোলে  ঐ স্থানটি ভরাট করে নিচ্ছে। এছাড়া কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পসহ উপকূলীয় এলাকার বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছে। এতে ঐ এলাকার বিশাল প্যারাবন নদী গর্ভে বিলিন হয়ে যাচ্ছে। পাশা-পাশি ভরাট চর ও বিলিন হয়ে যাচ্ছে। উক্ত ড্রেজিং মেশিন জব্ধ করার জন্য এলাকার সুশীল সমাজরা সংশ্লিষ্ট কৃর্তপক্ষকে বার বার আবেদ-নিবেদন করার পর সম্প্রতি কয়েক দফায় নামে মাত্র অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু রহস্যজনক কারণে কর্তৃপক্ষ তা জব্ধ কিংবা ড্রেজিংমেশিনের সংশ্লিষ্ট মালিককে আটক করতে ব্যর্থ হন। ফলে উক্ত স্থান থেকে প্রতিনিয়ত বালি উত্তোলন করতে উক্ত সিন্ডিকেট কোন ধরনের তোয়াক্কা করছে না। এদিকে মহেশখালী এসিল্যান্ড (ভূমি) হাসান মারুফ থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উক্ত স্থান থেকে বালি তোলার সংবাদ পেয়েছি।  কিন্ত সেখানে যাওয়ার পূর্বে ড্রেজিং মেশিন সরিয়ে নেয়ার কারণে তা জব্ধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

মাদক বিরোধী ও সমাজকল্যান মূলক সংগঠন ড্রীমক্লাবের সাথে যুক্ত হন

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক: অমিত চৌধুরী
নির্বাহী সম্পাদক: সেলিম হোসেন
বার্তা সম্পাদক: মোঃ শিলু পারভেজ
আন্তর্জাতিক সম্পাদক: এস এম মেহেদী

প্রধান কার্যালয়ঃ কালিয়াকৈর, গাজীপুর, বাংলাদেশ।

শাখা অফিসঃ  গোড়াই , মির্জাপুর , টাংগাইল, বাংলাদেশ ।

Mob: 01711113657,01611117887 bangladeshdainik@gmail.com

www.bangladeshdainik.com

Design & Developed BY ZahidITLimited